Monday , October 14 2019
প্রচ্ছদ / অর্থ-বানিজ্য / রাজধানীতে মোটরবাইক শো’র যত অফার!

রাজধানীতে মোটরবাইক শো’র যত অফার!

রাজধানী ঢাকায় বারিধারার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরাতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে একদশতম মোটর ও
দ্বিতীয়তম ঢাকা বাইকশো- ২০১৬।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) থেকে শুরু হলেও সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার থেকে জমে উঠেছে প্রদর্শনীটি। প্রদর্শনীতে সব
বয়েসী দর্শনার্থীর উপস্থিতি থাকলেও তরুণদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। তরুণীরাও এ ক্ষেত্রে পিছিয়ে ছিলেন না।
চলাচলের সুবিধার্থে ঢাকার রাস্তায় এখন অনেকেরই পছন্দ ‘স্কুটি’। প্রতিষ্ঠিত বাইক নির্মাতা ও আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলো
তাদের আকর্ষণীয় ডিজাইনের বাইকগুলি প্রদর্শন করছে এই প্রদর্শনীতে।

দুর্দান্ত সব বাইকের সমাহারে বাইকার্সরা এক ছাদের নিচে ঘুরেফিরে দেখে নিচ্ছেন তাদের পছন্দের মোটর ও
বাইকগুলি। কেউ কেউ আবার বুকিংও দিচ্ছেন। কেউ কেউ আবার প্রদর্শনী থেকেই কিনে নিয়ে যাচ্ছেন তাদের
পছন্দের বাইকটি। আসুন, জেনে নিই প্রদর্শনীতে আগত মোটরবাইক প্রতিষ্ঠানগুলির আকর্ষণীয় অফার!

সুজুকি

বাংলাদেশে সুজুকির আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান র‌্যাংকন মোটর বাইকস লিমিটেড। প্রদর্শনী উপলক্ষে তারা দিচ্ছে, বেশ কিছু
আকর্ষণীয় অফার। রয়েছে মেগা র‌্যাফেল ড্র। যে কোনো সুজুকি মোটরবাইক কেনায় বুকিং দিলেই মিলছে, পাঁচ হাজার টাকা
ক্যাশব্যাক। আর যে কোনো বাইক বুকিং দিতে ন্যূনতম পাঁচ হাজার টাকা হলেই চলবে। পিএস৪ বাইক রেসিং
প্রতিযোগিতায় সুজুকি দিচ্ছে আকর্ষণীয় পুরস্কার। এ ছাড়া প্রদর্শিত হচ্ছে- সুজুকি জিক্সার, জিক্সার এসএফ, হায়াতিসহ বেশ
কয়েকটি মডেলের মোটরবাইকও।

বাজাজ 

উত্তরা মোটর্স লিমিটেড বাংলাদেশে বাজাজ মোটরসাইকেল আমদানি করে থাকে। প্রদর্শনী উপলক্ষে বাজাজের দুটি নতুন
মডেলের মোটরবাইক পালসার এএস১৫০ ও ডিসকভার ১৫০এফ প্রদর্শন করা হচ্ছে। বাজাজের যে কোনো বাইকেই
প্রতিষ্ঠানটি দিচ্ছে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত ছাড়। বাজাজের এ অফারটি শুধুমাত্র মেলার জন্যই প্রযোজ্য।

কিওয়ে

স্পিডোজ লিমিটেড বাংলাদেশে কিওয়ে মোটরবাইকের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। প্রদর্শনীতে কিওয়ে সুপারলাইন ১৫০
মডেলের মোটরবাইকটি দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। এছাড়া কিওয়ে ১০০, ১২৫ এবং ১৫০ সিসির
মোটরবাইকগুলোও প্রদর্শনীতে দেখানো হচ্ছে।

কিওয়ে টিএক্সএম ১৫০ কিওয়ে টিএক্সএম ১৫০ মডেলের মোটরবাইকটি প্রদর্শনী থেকে কিনলে ঢাকা-ব্যাংকক-ঢাকা এয়ার
টিকেট নিশ্চিত ফ্রি পাওয়া যাবে। প্রদর্শনীতে যে কোনো কিওয়ে মোটরবাইকের সঙ্গে সেলফি তুলে ফেসবুকে
#‎KeewayBangladesh‬ ও ‪#‎DhakaBikeShow2016‬ হ্যাশট্যাগ দুটি পোস্ট করলে ডিসকাউন্ট যাবে। সেলফির
ছবি কিওয়ের ডিসকাউন্ট ডেস্কে জমা দিলে সেখান থেকে ডিসকাউন্ট কার্ড দেওয়া হবে। সেই ডিসকাউন্ট কার্ড দেখিয়ে এ
বাইকে পাওয়া যাবে ১০ হাজার টাকা ছাড়ে। এই ডিসকাউন্ট কার্ডের মেয়াদ তিনমাস। ডিসকাউন্ট অফারটি শুধুমাত্র
রাজধানী ঢাকার স্পিডোজের মহাখালীর প্রধান শোরুমের জন্যই প্রযোজ্য।

এছাড়া ১০০ সিসি ও ১২৫ সিসির মোটরবাইকগুলোতে মিলবে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত ছাড়।

রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড
রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড একমাত্র প্রতিষ্ঠান যারা মোটরবাইক মার্কেটে দেশের প্রতিনিধিত্ব করছে। প্রদর্শনী
উপলক্ষে তারা কোনো ধরনের ডিসকাউন্টের অফার না দিলেও দিচ্ছে, কিস্তিতে মোটরবাইক কেনার সুবিধা। রানার টার্বো
১২৫ মোটরবাইকটি প্রদর্শনী উপলক্ষে উন্মোচিত করা হয়েছে।

লিফান 
বাংলাদেশে লিফান মোটরবাইকের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান হচ্ছে, রাসেল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। প্রদর্শনী উপলক্ষে রাসেল
ইন্ডাস্ট্রিজ লিফান কেপিআর ১৫০ সিসিতে দিচ্ছে ফ্রি রেজিস্ট্রেশন। এছাড়াও মেলায় প্রদর্শিত হচ্ছে, কেপি ১৫০ ভার্সন ২,
লিফান কেপি ১৫০ মিনি, লিফান পনি ১০০, মোটোক্রস ট্রেইল এবং মোটোক্রস ফাইটার ৭১। প্রত্যেকটি মোটরবাইকে
থাকছে, পাঁচ হাজার টাকা থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ছাড়।

তিনদিনব্যাপী (বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার) এই প্রদর্শনীতে বিশ্বের প্রায় ১৪টি দেশ থেকে ব্র্যান্ড নিউগাড়ি, মোটরবাইক ও
অটো-যন্ত্রাংশ শিল্পের উৎপাদক এবং বিপণনকারী প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। প্রদর্শনীতে প্রায় দুই শতাধিক স্টল রয়েছে। এখানে
দেশি ও বিদেশি নির্মাতা ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান অত্যাধুনিক গাড়ি, মোটরবাইক, লুব্রিক্যান্ট, সিএনজিতে রূপান্তরসহ
বিভিন্ন প্রযুক্তি ও অটো-যন্ত্রাংশ প্রদর্শন করছে।

প্রদর্শনীটি প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.