Sunday , December 8 2019
প্রচ্ছদ / খেলা / মিসবাহ-ইয়াসিরে লাগাম পাকিস্তানের হাতে

মিসবাহ-ইয়াসিরে লাগাম পাকিস্তানের হাতে

ক্রীড়া ডেস্ক : অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হকের দৃঢ়তাপূর্ণ ব্যাটিংয়ের পর ইয়াসির শাহর দারুণ বোলিংয়ে জ্যামাইকা টেস্টের লাগাম পাকিস্তানের হাতে।

কিংসটনের স্যাবিনা পার্কে সোমবার চতুর্থ দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৯৩ রান। পাকিস্তানকে আবার ব্যাটিংয়ে নামাতে এখনো ২৮ রান প্রয়োজন ক্যারিবীয়দের।

পাকিস্তানের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে মোহাম্মদ আব্বাস এলবিডব্লিউ হয়ে গেলে ৯৯ রানে অপরাজিত থাকতে হয়েছে মিসবাহকে। টেস্টে ৯৯ রানে অপরাজিত থাকা ইতিহাসের ষষ্ঠ আর পাকিস্তানের প্রথম ব্যাটসম্যান তিনিই।

চা বিরতির পর ব্যাটিংয়ে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভালো শুরুরই ইঙ্গিত দিচ্ছিল। দুই ওপেনার ক্রেইগ ব্রাফেট ও কাইরান পাওয়েল কোনো উইকেট না হারিয়ে কাটিয়ে দিয়েছিলেন প্রথম দশ ওভার। একাদশ ওভারে ইয়াসিরকে প্রথমবার আক্রমণে আনেন মিসবাহ। আর নিজের প্রথম বলেই দলকে সফলতা এনে দেন এই লেগ স্পিনার।

অফ স্টাম্পে ইয়াসিরের লেংথ বল ব্রাফেট ব্যাকফুটে খেলতে গিয়ে পেসে পরাস্ত, বোল্ড। এক বল পর অভিষিক্ত শিমরন হেটমায়ারের উইকেটও প্রায় পেয়ে যাচ্ছিলেন ইয়াসির। কিন্তু বল হেটমায়ারের গ্লাভসে চুমু খেয়ে স্লিপ থেকে একটু সামনে পড়ে।

পরের দশ ওভার পাওয়েল ও হেটমায়ার অবশ্য ইয়াসিরকে ভালোই সামলেছেন। হেটমায়ার মেরেছেন বিশাল এক ছক্কাও। এই জুটি তুলে ফেলেছিল ৫০ রান। এরপর আবার ইয়াসির-জাদু। ৩০ বছর বয়সি লেগ স্পিনার ছক্কা খাওয়ার পরের বলেই বোল্ড করেছেন হেটমায়ারকে (২০)।

ইয়াসির দিনে নিজের শেষ দুই ওভারে ফিরিয়েছেন শাই হোপ আর পাওয়েলকেও। হোপ হয়েছেন এলবিডব্লিউ। ইয়াসির নিজের একদম শেষ বলে নিয়েছেন পাওয়েলের মূল্যবান উইকেটটি। স্লিপে ইউনিস খানের হাতে ধরা পড়ার আগে পাওয়েল করেছেন ৪৯। অপরাজিত থেকে দিন শেষ করা দেবেন্দ্র বিশু ও বিশল সিং রানের খাতা খুলতে পারেননি।

এর আগে তৃতীয় দিনের ৪ উইকেটে ২০১ রান নিয়ে চতুর্থ দিন শুরু করেছিল পাকিস্তান। সরফরাজ আহমেদের দ্রুত ফিফটি ও মিসবাহর অপরাজিত ৯৯ রানে পাকিস্তান অলআউট হয় ৪০৭ রানে। সফরকারীরা লিড পায় ১২১ রানের।

সরফরাজ ৭০ বলে ৫ চার ও এক ছক্কায় করেছেন ৫৪ রান। সরফরাজ ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার পর নিয়মিত বিরতিতেই পরের তিন উইকেট হারিয়েছে পাকিস্তান।

ইয়াসির যখন নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হলেন, তখন মিসবাহর রান ৬৮। দশম উইকেটে অভিষিক্ত আব্বাসের সঙ্গে ৩৪ রানের জুটি গড়ে একাদশ টেস্ট সেঞ্চুরির খুব কাছেই চলে গিয়েছিলেন পাকিস্তান অধিনায়ক। ১৩৮তম ওভারে বিশুর শেষ বলে ২ রান নিয়ে মিসবাহ পৌঁছে যান ৯৯-এ।

কিন্তু পরের ওভারে আর স্ট্রাইক পাননি মিসবাহ। রোস্টন চেজের প্রথম তিন বল ডট দেওয়ার পর চতুর্থ বলে এলবিডব্লিউ হয়ে যান আব্বাস। রিভিউ নিয়েও লাভ হয়নি। ফলে ৯৯ রানেই অপরাজিত থাকতে হয় এই সিরিজ শেষেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলতে যাওয়া মিসবাহকে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস: ৯৫ ওভারে ২৮৬

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস: ১৩৮.৪ ওভারে ৪০৭ (মিসবাহ ৯৯*, বাবর ৭২, ইউনিস ৫৮, সরফরাজ ৫৪; জোসেফ ৩/৭১, গ্যাব্রিয়েল ৩/৯২)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ইনিংস ৯৩/৪ (ব্রাফেট ১৪, পাওয়েল ৪৯, হেটমায়ার ২০, হোপ ৬, বিশু ০*, বিশল ০*; ইয়াসির ৪/৩৩)।

Leave a Reply

Your email address will not be published.