Sunday , December 4 2022
সর্বশেষ সংবাদ:
প্রচ্ছদ / জাতীয় / পদ্মাসেতু দুর্নীতি মামলা বিশ্বব্যাংকের চাপেই

পদ্মাসেতু দুর্নীতি মামলা বিশ্বব্যাংকের চাপেই

বিশ্বব্যাংকের চাপেই পদ্মাসেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের মামলা করতে হয়েছে বলে জানালেন দুর্নীতি দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বিদায়ী চেয়ারম্যান মো. বদিউজ্জামান। তিনি বলেছেন, একটি অহেতুক অভিযোগ নিয়ে বিশ্বব্যাংকের সাথে লড়াই করতে হয়েছে। আমরা যখনই মামলা করেছিলাম, তখনই বুঝা গিয়েছিল এটা একটি ভিত্তিহীন অভিযোগ।

রোববার বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের চেয়ারম্যান ও তদন্ত বিভাগের কমিশনারের বিদায়ী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় দুদক কমিশনার (তদন্ত) মো. শাহাবুদ্দিন চুপ্পু উপস্থিত ছিলেন।

দুদক চেয়ারম্যান মো. বদিউজ্জামান ও কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন চুপ্পুর রোববার ছিল শেষ কর্মদিবস। আগামীকাল সোমবার থেকে নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে সাবেক জ্যেষ্ঠ সচিব ইকবাল মাহমুদ ও কমিশনার হিসেবে সাবেক জেলা জজ এ এফ এম আমিনুল ইসলাম যোগদান করবেন।

বিদায়ী বক্তব্যে পদ্মাসেতুর ষড়যন্ত্র মামলার কথা তুলে ধরে বদিউজ্জামান বলেন, আমরা এই মামলার তদন্ত পর্যায়ে যতই গভিরে গিয়েছি ততই এই অভিযোগটি ভিত্তিহীন বলে মনে হয়েছে। এই মামলা করলে পদ্মা নির্মিত হবে এবং দেশের উপকারে আসবে- এই ভেবে মামলাটি করা হয়েছিল। এই মামলায় দেশের ভাবমূর্তি যেন ক্ষুণ্ণ না হয়, তাই একজন দক্ষ কর্মকর্তা দ্বারা মামলাটির তদন্ত করা হয়েছিল। পরে তদন্ত অভিযোগটি ভিত্তিহীন বলে মনে হওয়ায় এই চূড়ান্ত প্রতিবেদন (এফআরটি) দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, গত ৫ বছর দুদকের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সহযোগিতায় কমিশন আন্তরিকতার সাথে কাজ করেছে। এই ৫ বছর আমরা যে কাজ করেছি, তার মূল্যায়ন দেশবাসী করবে। এসময় তিনি গত পাঁচ বছরের উল্লেখযোগ্য কর্মকাণ্ডের মধ্যে হলমার্ক কেলেঙ্কারি, ডেসটিনির প্রতারণা ও বিসমিল্লাহ গ্রুপের প্রতারণার কথা
উল্লেখ করেন।

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বদিউজ্জামান বলেন, আমরা হয়ত আপনাদের সব দাবি-দাওয়া পূরণ করতে পারিনি। তবে আপনাদের রেশন পদন্নতিসহ দাবি-দাওয়া যতটুকু সম্ভাব পুরুণ করা হয়েছে। আমাদের অনেক প্রচেষ্টায় কমিশনের নিজস্ব কর্মকার্তাকে প্রথম মহাপরিচালক পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছিল।

কমিশনে অনেক অভিযোগ আসে, অভিযোগ মানে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি দোষী না। তাই কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ আসলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির সাথে দায়িত্বশীল আচরণ করতে পরামর্শ দেন বিদায়ী এই চেয়ারম্যান।

দুদক সচিব আবু মো. মোস্তফা কামালের পরিচালনায় বিদায়ী অনুষ্ঠানে দুদকের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.