Sunday , December 4 2022
সর্বশেষ সংবাদ:
প্রচ্ছদ / খেলা / ইংল্যান্ডে অনুশীলন করবেন সাকিব

ইংল্যান্ডে অনুশীলন করবেন সাকিব

ডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২৪, ২০২০ , ৯:২৩ অপরাহ্ণ

সবকিছু ঠিক থাকলে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আর তিন মাস পর ২৯ অক্টোবর জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার উপযুক্ত হবেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এর জন্য তিন মাস আগে থেকে ফেরার প্রস্তুতি শুরু করতে যাচ্ছেন তিনি। বাঁহাতি এ অলরাউন্ডারের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, করোনাকালে আমেরিকায় অবস্থান করা সাকিব ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলনের ব্যবস্থা করেছেন তিনি।

আসন্ন কুরবানি ঈদের পর পরই প্রত্যাবর্তন মিশন শুরু করবেন ৩৩ বছর বয়সী সব্যসাচী ক্রিকেটার। ইংল্যান্ডে দুই মাস প্র্যাকটিস করলে ফিটনেস ও স্কিলে আগের ছন্দ ফিরে পেতে সমস্যা হবে না সাকিবের। সবশেষ গত বছর ১৩ সেপ্টেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন সাকিব। এর পর থেকে খেলার বাইরে তিনি।

জুয়াড়িদের কাছ থেকে পাওয়া ফিক্সিং প্রস্তাব গোপন করায় সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা পড়েন সাকিব। তার নিষেধাজ্ঞার বিজ্ঞপ্তিতে কঠিন কতগুলো শর্ত জুড়ে দেয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এক বছর জাতীয় ফেডারেশন বা ফেডারেশনের অধিভুক্ত কোনো সংস্থার সুযোগ-সুবিধা নিতে পবন না তিনি। আর এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকরের ভার দেয়া হয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি)। নিষেধাজ্ঞার ১২ মাস কোনো ধরনের প্রতিযোগিতা বা চ্যারিটি ম্যাচও খেলা বারণ তার।

আইসিসির দেয়া এই কঠিন শাস্তি অক্ষরে অক্ষরে ২০২০ সালের ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত পালন করে ফিরতে হবে সাকিবকে। নিষেধাজ্ঞার সব শর্ত পূরণ করে প্রায় নয় মাস পার করেছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার। খুব সম্ভবত বিপিএল দিয়ে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরার সুযোগ পাবেন তিনি। নভেম্বর-ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে পারে ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক এ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট।

ওদিকে ক্রীড়াবিষয়ক সংবাদ মাধ্যম ক্রিকইনফোর ‘ক্রিকভাজে’ সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার দ্বীপ দাশগুপ্তার সঙ্গে আলাপে সাকিব তার নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বলেন, ‘যা হওয়ার হয়ে গেছে। মানুষ ভুল করতে বাধ্য। কেউ শতভাগ সঠিক না। গুরুত্বপূর্ণ হলো ওই ভুল থেকে শক্তভাবে ফিরে আসা। অন্যদের ভুল না করার পরামর্শ দেয়া।’

সাকিব আরো জানান, ‘ভুলটা অন্য কারো সঙ্গেও হতে পারত, আমি তখন তার থেকে শিক্ষা নিতাম। ঘটনাটা আমার সঙ্গে ঘটেছে। এখন আমার থেকে অন্যদের শিক্ষা নেয়া উচিত। আমি আকসুর সঙ্গে আলাপে প্রথম দিন থেকেই সৎ ছিলাম। তাদের কোনো প্রশ্নের উত্তর লুকাইনি। সবকিছুর সোজা-সাপ্টা জবাব দিয়েছি। কারণ ভুলটা আমারই ছিল।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.