Wednesday , September 30 2020
সর্বশেষ সংবাদ:
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / নিয়ম অমান্য করে বুয়েটে কমিটি দিল ছাত্রদল

নিয়ম অমান্য করে বুয়েটে কমিটি দিল ছাত্রদল

ঢাবি প্রতিনিধি প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২৫, ২০২০ , ২:৩৮ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ক্যাম্পাসে সব ধরনের সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ থাকা স্বত্বেও আহ্বায়ক কমিটি গঠন করেছে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল।

গতকাল শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাতে বুয়েটসহ চার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো হল ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট), ইডেন মহিলা কলেজ ও স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক আবদুস সাত্তার পাটোয়ারি স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কমিটি গঠনের বিষয়টি জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল এ চারটি আংশিক কমিটিকে অনুমোদন দিয়েছেন।

আহবায়ক কমিটিকে এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটিসহ ওইসব কমিটির অধীনস্থ ইউনিট কমিটির তালিকা কেন্দ্রীয় সংসদে জমা দিতে বলা হয়েছে।

কমিটি গঠনের বিষয়ে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন বলেন, এই চার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আমরা আহ্বায়ক কমিটি গঠন করেছি। আহ্বায়ক কমিটির মেয়াদ তিন মাস। এ সময়ের মধ্যেই আহ্বায়ক কমিটিকে পূর্ণ কমিটি গঠন করে কেন্দ্রের নিকট জমা দিতে বলা হয়ছে।

গত বছর বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডের ঘটনার পর শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে বুয়েটে সকল ধরণের ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করেন তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম। এরপরই সে বছরের ১১ অক্টোবর ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করে অফিশিয়াল নোটিশও জারি করেছিল বুয়েট প্রশাসন।

বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদেরদের অন্যতম একজন অন্তরা তিথি ভোরের কাগজকে বলেন, গতকাল কমিটি দেয়ার বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গেই আমরা বুয়েট শিক্ষার্থীরা ছাত্র কল্যাণ পরিচালক ও উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা আমাদের আবেদন গ্রহণ করেছেন এবং দ্রুতই এ বিষয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

বুয়টে যে কোন ছাত্র সংগঠনের কমিটি অনুমোদন দেয়া বুয়েটের আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক উল্লেখ করে বুয়েটের ছাত্র কল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান ভোরের কাগজকে জানান, আমরা বিষয়টি দেখে অবাক হয়ছি। তবে যারা কমিটি দিয়েছে, তারাই ভাল বলতে পারবে তারা কোন বিবেচনায় এ কাজ করেছে। তাদের বিরুদ্ধে বুয়েটের বিধি অনুসারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তবে এ কারনে ঠিক কি ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হতে পারে সে সম্পর্কে স্পষ্ট করে কিছু বলতে পারেন নি তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক সত্যপ্রসাদ মজুমদার ভোরের কাগজকে বলেন, আমরা বিষয়টি জানতে পেরেছি। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। আমরা খুব দ্রুতই তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে যাচ্ছি। এ বিষয়টিতে কম্প্রোমাইজ করার কোন সুযোগ নেই। প্রাথমিকভাবে আমরা তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিশ(শোকজ) দিব। তারপর তাদের শৃঙ্খলা কমিটির মুখোমুখি হতে হবে।

বুয়েটে কমিটি দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন বলেন, বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি তৎকালীন সামরিক শাসক আইয়ুব খানের সময় থেকেই নিষিদ্ধ ছিল। এ নিয়ে অনেক কথা আছে৷ আপাতত এ বিষয়ে আমি এখন কিছু বলতে চাচ্ছি না।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় এ বিষয়ে তার বক্তব্য জানা যায়নি।

বুয়েটের ছাত্রদলের গঠিত কমিটিতে আহ্বায়ক হিসেবে আছেন আসিফ হোসেন রচি, যুগ্ম আহ্বায়ক ফয়সাল নূর, সদস্য সচিব আলী আহমদ, সদস্য নওরোজ রহমান ইমন ও মুসাওয়ার আহমেদ শফিক। আর ডুয়েটে আহ্বায়ক সোহাগ সরদার, যুগ্ম আহ্বায়ক সৈয়দ রাসেল, সদস্য সচিব ফজলে রাব্বি খান, সদস্য মো. সুজন ও মো. রাসেল মিয়া।

অন্যদিকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজে গঠিত কমিটিতে আহ্বায়ক হিসেবে আছেন মেহেদি হাসান সাকিব, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মেহেদী হাসান, মিজানুর রহমান, আল আমিন ভুঁইয়া, আফজাল হোসেন, খন্দকার মুয়িদ আদনান, তানভীর হোসেন তুহিন, তানভীর রহমান তন্ময়, বিজয় কুমার সাহা, মোখলেছুর রহমান ও নোমান পারভেজ, সদস্য সচিব সাদবিন নেওয়াজ, সদস্য এসএম নাঈম। ইডেন মহিলা কলেজে আহ্বায়ক রেহানা আক্তার শিরিন, যুগ্ম আহ্বায়ক সৈয়দা সুমাইয়া পারভীন ও জান্নাতুল ফেরদৌস, সদস্য সচিব সানজিদা ইয়াসমিন তুলি, সদস্য তোহফা মোস্তফা, আনিকা চৌধুরী, শিখা আক্তার ও স্বর্নালী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.