Wednesday , August 10 2022
প্রচ্ছদ / বিনোদন / সুশান্ত সিং রাজপুত চলে যাওয়ার দুই বছর

সুশান্ত সিং রাজপুত চলে যাওয়ার দুই বছর

ডেস্ক : বলিউডের উঠতি তারকাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। ২০২০ সালের এই দিনে (১৪ জুন) ঝড়ে যায় তার তাজা প্রাণ। পরিবার, ভক্ত ও সহকর্মীদের কাঁদিয়ে চলে যান না ফেরার দেশে। সুশান্তকে মুম্বাইতে তার অ্যাপার্টমেন্টে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল। ঘটনার দুই বছর পরও সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি অভিনেতা আত্মহত্যা করেছেন নাকি খুন হয়েছেন। সুশান্তের মৃত্যু যে পুরো বলিউডের ইন্ডাস্ট্রিকে এভাবে নাড়িয়ে দেবে, তা কেউ কল্পনাও করতে পারেননি। তার মৃত্যুর পর নড়েচড়ে গেছে বলিউডের প্রতি মানুষের বিশ্বাসের ভিত।

১৯৮৬ সালের ২১ জানুয়ারি ভারতের পাটনায় জন্মগ্রহণ করেন সুশান্ত। তবে জন্মের বেশ কয়েক বছর পর পরিবারের সঙ্গে তিনি দিল্লিতে চলে যান। দিল্লি কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়েও ভর্তি হন। কিন্তু সেসময় থেকেই থিয়েটারে অভিনয় চর্চা শুরু করেন তিনি। নাচের তালিমও নেন। তবে শেষ পর্যন্ত পড়াশোনা সম্পন্ন করতে পারেননি সুশান্ত।

সুশান্তের অভিনয় জীবন শুরু থিয়েটার দিয়ে। ভারতীয় টেলিভিশন স্টার প্লাসের ‘কিস দেশ মে হ্যায় মেরা দিল’ ধারাবাহিকের মধ্য দিয়ে ২০০৮ সালে ছোট পর্দায় অভিষেক ঘটে তার। এরপর জি টিভিতে ‘পবিত্র রিশতা’ ধারাবাহিকে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন তিনি। ক্যারিয়ারে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে অভিনয় করে যাচ্ছিলেন তিনি।

বেশকিছু হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন সুশান্ত। এরমধ্যে রয়েছে ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী’, ‘কেদারনাথ’, ‘শোন চিড়িয়া’ ও ‘ছিছোরে’ ইত্যাদি। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমার মধ্যে আরো রয়েছে ‘শুদ্ধ দেশি রোমান্স’, ‘রাবতা’ ও ‘পিকে’।

সুশান্ত সিং রাজপুতের সবচেয়ে আলোচিত সিনেমা ছিল ‘এম.এস. ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’। ভারতের সর্বকালের অন্যতম সফল ক্রিকেট অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির বায়োপিকটি তাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়।

তার মৃত্যুর পর ২০২০ সালের ২৪ জুলাই ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পায় সুশান্তের শেষ সিনেমা ‘দিল বেচারা’। ওই সময় সারাবিশ্বে সবচেয়ে বেশিবার দেখা সিনেমা হিসেবে নতুন নজির তৈরি করেছিল এটি