Wednesday , August 10 2022
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / ইসির ইভিএম যাচাই, নেই বিএনপিসহ ৫ দল

ইসির ইভিএম যাচাই, নেই বিএনপিসহ ৫ দল

প্রতিবেদক : ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) যাচাই ও মেশিনটির ভালো মন্দ নিয়ে মতবিনিময়ের জন্য নিবন্ধিত ৩৯ রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় দফায় ১৩ দলকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও বিরোধী দল বিএনপিসহ ৫ রাজনৈতিক দল এ সভায় অংশ নেয়নি। মঙ্গলবার (২১ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচব ভবনে বিকাল তিনটায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে ইভিএম যাচাইয়ের প্রথম সভায় ১৩ দলকে টেকনিক্যাল পার্সনসহ আমন্ত্রণ জানানো হলেও সে অনুষ্ঠানে রাজনৈতিক দলগুলো অংশ নিলেও তাদের সঙ্গে কোনো টেকনিক্যাল পার্সন ছিলনা।

আজ দ্বিতীয় দফায় যে রাজনৈতিক দলগুলো অংশ নিয়েছে তারা ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ, ইসলামী ঐক্যজোট, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি-এনপিপি, খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ।
যে সব দলগুলো সংলাপে আসে নাই সেগুলো হল :

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ মুসলিম লীগ-বিএমএল। এদিকে প্রথম দিন কোনো রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে কোনো টেকনিক্যাল পার্সন না থাকলেও আজকে উপস্থিত কয়েকটি দলের সঙ্গে টেকনিক্যাল পার্সন রয়েছে বলে জানান দলগুলোর প্রতিনিধিরা।

অনুষ্ঠানে প্রথমেই সিইসি জানান, আমরা নিবন্ধিত সবগুলো দলের ইভিএম নিয়ে মতামত জানবো, তারা কি চায়, আমরা তাদের ইভিএমের বিষয়ে সব কিছু জানাবো, দেখাবো। তবে আমরা আজ বিএনপিসহ ১৩টি দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম। কোনো দল না আসলে ইসির কি করার থাকতে পারে। আমাদের আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি ছিলনা।

ইসির করা তালিকা অনুযায়ী, আগামী ২৮ জুন তৃতীয় দফায় ক্ষমতাসীন দলসহ আরো ১৩টি নিবন্ধিত দলের সঙ্গে ইভিএম যাচাইয়ের মতবিনিময় সভায় বসবে সাংবিধানিক এ প্রতিষ্ঠানটি। সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ বাকি তিন কমিশনার, ইসির সচিব, অতিরিক্ত সচিবসহ রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবে।
২৮ জুন যারা ইসিতে আসার আমন্ত্রণ পেয়েছে :

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল-এমএল, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি, গণতন্ত্রী পার্টি, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, বিকল্প ধারা বাংলাদেশ, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি ও বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট।